Home / করোনা ভাইরাস / মানবিকতা ও মানব সেবার এক উজ্জ্বলতম দৃষ্টান্ত “করিমগঞ্জ থানার পুলিশ

মানবিকতা ও মানব সেবার এক উজ্জ্বলতম দৃষ্টান্ত “করিমগঞ্জ থানার পুলিশ

মোঃ জনি হোসেন করিমগঞ্জ থেকে।

সম্প্রতি করোনা ভাইরাস সংক্রমণে সমগ্র বিশ্ব মানবজাতি এক নির্মম বাস্তবতার মুখোমুখি।
পৃথিবীর প্রতিটি দেশের জনগন সরকারি বিধি নিষেধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল ও সচেতন থেকে করোনার মোকাবেলা করছে।এবং স্বাস্থ্য কর্মীরা ওসঠিক ভাবে স্বাস্থ্য সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখে জনগনের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। দুঃখ জনক হলেও সত্য যে আমাদের এই অসচেতন জনবহুল রাষ্ট্রে চিকিৎসা দেওয়ার পূর্বে জনগন কে সংক্রমক বিধি নিষেধের আওতায় আনাটা বেশি জরুরী হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনি আইনও পেশাগত দ্বায়িত্বের পাশা পাশি সামাজিক দায়বদ্ধতা ও নৈতিক মুল্যবোধ নিয়ে অত্যান্ত আন্তরিকতার সহিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় নিরলস ভাবে কাজ করছে।

মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য এই প্রতিপাদ্য কে লক্ষে নিয়ে জনগনের সার্বিক সেবা প্রদানে এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন পুলিশ।করোনায় মৃত্যু হওয়া লাশের সংস্পর্শে অনেকের পরিবার, স্বজনরা আসতে অসম্মতি প্রকাশ করছে।জানাজা পড়ানো,কবর খোড়া, দাফন করা শেষে রুহের মাগফেরাত কামনায় পুলিশ।পাড়ায় মহল্লায় দিবা রাত্রি অসুস্থ রোগীর খোজ নেওয়া, ডাক্তারের সহায়তা দেওয়া, এবং ঘরে ঔষধ পৌঁছে দেওয়ায় পুলিশ। ভাইরাস আক্রান্তদের হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। লোকচক্ষুর আড়ালে মধ্যবিত্তদের ঘরে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে পুলিশ।

বিনোদনের মাধ্যমে জনগন কে সচেতন করছে পুলিশ।জনগন কে অনলাইনের মাধ্যমে সহ যোগিতায় থাকছে পুলিশ।থানায় ফোন করলে খাদ্য পৌছে দিচ্ছে পুলিশ। প্রচন্ড ক্ষরতাপে গরম পিচের রাস্তায় দাড়িয়ে নিয়ম পালনে বাধ্য করছে পুলিশ। দরিদ্র ও শ্রমজীবী মানুষের হাতে ত্রান দিচ্ছে পুলিশ। নিজেকে পরিবার পরি জনদের মাঝে বঞ্চিত রেখে দেশের অসহায় এতিম পথিতদের সার্বিক সহায়তা দিচ্ছে পুলিশ।হাট বাজারে জনগনের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্য বিক্রয়ে শৃঙ্খলা ও দ্রব্যমুল্য নিয়ন্ত্রন করছে পুলিশ।বর্তমানে দেশের এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে দেশের আইন শৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি জন গনের সেবা প্রদানে পুলিশেরভূমিকা অপরিসীম করোনা ভাইরাসের দুঃসময়ে পুলিশ বাহিনীর এমন জন সম্পৃক্তততা ও মনবিকতা একটি নতুন ভাবমূর্তি নির্মান করেছে। যাহা আগামী দিনে প্রতিটি বাহিনীর দেশ ও মানুষের কল্যান করার পথে পাথেয় হয়ে থাকবে।বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী সকলের সুস্বাস্থ্য কামনা করছি।

পুলিশ বাহিনী আমাদের নিরাপত্তার জন্য এতো কষ্ট করে তারপরও আমরা পুলিশকে কারণে অকারণে অপছন্দ করি। তাদেরকে নিয়ে নেতি বাচক সমালোচনা করি। তাদেরকে নিয়ে খারাপ ধারণা পোষণ করি। তারাও তো রক্তে–মাংসে গড়া মানুষ । তাদেরও আবেগ আছে, অনুভূতি আছে। মানুষের সম্মান পাওয়ার অধিকার আছে। আমরা যেন তাদের সঙ্গে খারাপ আচরণ না করি, বরং আমরা তাদের সাহসিকতার জন্য গর্ববোধ করতে পারি। মানুষের জানমাল ও সম্পদের নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকা পুলিশ নামক সব মানুষকে ভালোবেসে বুকে জড়িয়ে ধরতে পারি।তাই আসুন পুলিশকে ঘৃণার চোখ দিয়ে নয়, ভালোবাসা আর শ্রদ্ধার চোখ দিয়ে তাদের দিকে তাকাই। সবাই মিলে বদলে দিই সমাজ এবং দেশ। আমরা যেন পুলিশকে শ্রদ্ধা করি, ভালোবাসি।

About admin

Check Also

চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নেতৃত্বে ত্রান বিতরণ।

মোঃ রবিউল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা থেকে +8801984910935 চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশ সুপার মহোদয় মোঃ জাহিদুল ইসলাম স্যারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *